সংবাদ শিরোনাম :
নৈরাজ্য-বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির প্রতিবাদে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ মৌলভীবাজার জেলা জামাতের আমির গ্রেপ্তার শ্রীমঙ্গলে শিক্ষানবিশ আইনজীবী হত্যা মামলার ২ আসামিকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার সিলেট বাস টাার্মিনালে বিশাল জুয়ার আসর নেতৃত্বে রাজন,আল আমিন ও শ্রমিক নেতা সেলিম ছারছীনা দরবার শরীফের পীর সাহেবের ইন্তেকাল, জানাজা বৃহস্পতিবার তরুণদের দক্ষতা ও সম্ভাবনাই আগামীর বাংলাদেশের অর্থনীতির অন্যতম ভিত্তিঃ এমইউ ভিসি ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক মৌলভীবাজারে ডিবি ও পুলিশের অভিযানে মাদকসহ গ্রেপ্তার ৪ অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন অভিযানে ডেসকো ঝুঁকিপূর্ণ হওয়াতে মার্কেট ভাঙল শ্রীমঙ্গল পৌরসভা, নির্মাণ হবে অধুনিক মার্কেট কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা আমাদের জন্য যেমন সম্ভাবনা তেমনি চ্যালেঞ্জঃ এমইউ ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক
কুলাউড়ায় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে সরকারি বরাদ্দ আত্মসাতের অভিযোগ

কুলাউড়ায় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে সরকারি বরাদ্দ আত্মসাতের অভিযোগ

কুলাউড়ায় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে সরকারি বরাদ্দ আত্মসাতের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার টিলাগাঁও আজিজুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির নবনির্বাচিত সভাপতি শামীম আহমদের বিরুদ্ধে সরকারি চাল ও টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।
নবনির্বাচিত সভাপতিকে দায়িত্ব হস্তান্তরের আগে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গত ৬ ফেব্রুয়ারি সিলেট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কমিটির বর্তমান সভাপতি ও বিদ্যালয়ের অন্যতম দাতা সদস্য মো. আব্দুল হান্নান চৌধুরী।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার টিলাগাঁও আজিজুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির নবনির্বাচিত সভাপতি শামীম আহমদ গত ৪ ফেব্রুয়ারি প্রতারণা করে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ২০১৮-১৯ সালে কমিটির সভাপতি থাকাকালীন উপজেলা পিআইও অফিসের সাথে যোগাযোগ করে তৎকালীন এমপির বরাদ্দকৃত ৮ মেট্রিকটন চাল ও ৪০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। পরে এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন হয় এবং তা চলমান রয়েছে।
এ ছাড়া শামীম আহমদ জালিয়াতির মাধ্যমে বিদ্যালয়ে বরাদ্দকৃত টাকা উত্তোলন করে তা আত্মসাৎ করেছেন বলে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন বর্তমান সভাপতি আব্দুল হান্নান চৌধুরী।
লিখিত অভিযোগে আব্দুল হান্নান চৌধুরী আরও উল্লেখ করেন, ২০১৭-২০ সাল পর্যন্ত বিদ্যালয়ের রেজুলেশন বহিতে এই দুই প্রজেক্টের কোন কমিটি গঠন, ব্যয়ের বিবরণ, অনুমোদন কিংবা বিল ভাউচার এমনকি বিদ্যালয়ের অনুকূলে ব্যাংকের হিসাব শাখায় টাকা জমা হওয়ার কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। বিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মচারী এমনকি এলাকার কেউই এ বরাদ্দের বিষয়ে অবগত নয়।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ম্যানেজিং কমিটির বর্তমান সভাপতি মো. আব্দুল হান্নান চৌধুরী জানান, গত প্রায় ৪ মাস আগে শামীম আহমদের বিরুদ্ধে সরকারি বরাদ্দ আত্মসাতের বিষয়টি শুনেছি। পরবর্তীতে ম্যানেজিং কমিটির সভায় আত্মসাতের অভিযোগ উত্থাপিত হলে তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করি।
তিনি আরও জানান, উপজেলা পিআইও এবং ইউএনও অফিসে খোঁজ নিয়ে দেখেছেন তৎকালীন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও প্রজেক্ট সভাপতি শামীম আহমদ জালিয়াতির মাধ্যমে বিদ্যালয়কে পাস কাটিয়ে বরাদ্দ উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন।
অভিযোগটির ভিত্তি নেই উল্লেখ করে নবনির্বাচিত সভাপতি শামীম আহমদ বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার।
সিলেট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. রমা বিজয় সরকার বলেন, এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet