সংবাদ শিরোনাম :
ছাতকে ভারতীয় চিনি বোঝাই ট্রাক সহ আটক ১ ছাতকে ভূমিহীন-গৃহহীন ৬৮টি পরিবার পেয়েছে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ছাতক পৌরসভায় টিএলসিসি’র বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের আয়োজনে ওয়ার্ড সভা অনুষ্ঠিত দিরাইয়ের করিমপুর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের আয়োজনে ওয়ার্ড সভা অনুষ্ঠিত নেপাল-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ আ্যওয়ার্ড ২০২৪ পদকে ভুষিত হলেন অধ্যাপক হরি দাস রায়।। দিরাইয়ে এফআইভিডিবি-আরইসিসি প্রকল্পের সহযোগিতায় ওয়ার্ড সভা অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গলে গ্যাস সঞ্চালন লাইনের ওপর নির্মিত অবৈধ ২৫টি ঝুঁকিপূর্ণ স্থাপনা উচ্ছেদ জুড়ীতে পানিতে ডুবে দুই শিশু ও রাজনগরে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু মৌলভীবাজারে কোরবানির পশুর হাটের নিরাপত্তা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা
মৌলভীবাজারে ঘূর্ণিঝড় মিধিলি’র প্রভাবে রোপা আমন ধানসহ শীতালিন সবজির ক্ষতি

মৌলভীবাজারে ঘূর্ণিঝড় মিধিলি’র প্রভাবে রোপা আমন ধানসহ শীতালিন সবজির ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঘূর্ণিঝড় মিধিলি’র প্রভাবে মৌলভীবাজার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় রোপা আমন ধানসহ  আলু, শীতকালিন সবজির  ব্যাপক ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে।
শ্রীমঙ্গল উপজেলা কৃষি অফিস থেকে জানা যায়, চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় ১৫ হাজার ৩৬৫ হেক্টর জমিতে আমন ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। কিন্তু আবাদ হয়েছে ১৫ হাজার ৩৭৫ হেক্টর। এর মধ্য পাঁচ হেক্টর জমিতে হাইব্রিড জাতের বারি হাইব্রিড-৬, হীরা-১০, এজেড-৭০০৬ ও সুবর্ণ-৮ চাষ করা হয়। ১৫ হাজার ১২০ হেক্টর জমিতে উচ্চ ফলনশীল জাতের বিআর-১১, ১২, ব্রি ধান-৩২, ৩৪, ৪৯, ৫১, ৭১, ৭৫, ৮৭, ৯৩, ৯৪, ৯৫, বিনা-৭, ১১, ১৬, ও ১৭ এছাড়া ২৫০ হেক্টর জমিতে স্থানীয় জাতের বিরুইন, বালাম, কালিজিরা ও চিনিগুড়া ধান চাষ করা হয়। আর উৎপাদন লক্ষামাত্র ধরা হয় ৪৫ হাজার ৬৩৪ মে.টন (চাল)। উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্য আমন মৌসুমে ১১৫০ জন কৃষককে সরকারি প্রনোদনা (বীজ ও সার) দেয়া হয়েছে।

আশীদ্রোন ইউনিয়নের খোশবাস গ্রামের আব্দুস সালাম জিতু বলেন, চলতি মৌসুমে আমি ১২ কেদার জমিতে তিন জাতের আমন ধান রোপন করি। প্রথম দিকে পাঁকায় ধান গাছের ক্ষতি করলে পরে আবহাওয়া অনুক‚লে থাকায় রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছিল। কয়েকদিন ধান কাটা শুরু করার কথা ছিল। প্রবল বাতাসে পাকা ধান নুয়ে পড়ছে এবং ঝরে পড়েছে অনেক ধান। এছাড়া পাকা ধান ক্ষেতে পানি জমে গেছে। এখন ধান কাটা যেমন কষ্টের তেমনি ধান কাটা শ্রমিকদের দিতে হবে দিগুণ মজুরি। প্রচুর ধান নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ফসল নিয়ে এখন দুশ্চিন্তায় আছি। নউপজেলা কৃষি কর্মকর্তারা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় মিধিলির প্রভাবে আমন ধানের তেমন ক্ষতি হয়নি। এতে উৎপাদনের উপর কোনো প্রভাব পড়বে না। তবে ক্ষতি হয়েছে রবি সবজির বীজ তলায়, সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে আলু চাষিদের অন্তত(ত্রিশ) হেক্টর জমির। সিন্দুনখান ইউনিয়নের আলু চাষি মো. রোশন মিয়া বলেন, পাঁচ ছয় দিন আগে আমি বেশ কিছু জমিতে আলুর বীজ রোপন করি। এখনও চারা উঠেনি। বৃষ্টির কারনে সব বীজ নষ্টে হয়েগেছে। নতুন করে আবারও আলু বীজ রোপন করতে হবে।
শ্রীমঙ্গল উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা মাকসুদুর রহমান বলেন, ঘূর্ণিঝড় মিধিলির প্রভাবে আমন ধানের তেমন ক্ষতির সম্ববনা নেই। এখন মুঠামুঠো জমির সব ধানই পাঁকা। যেসব ধান জমিতে পড়ে গেছে, রুদ্র উঠলে ধানি জমির পানি কমে আসলে ধান কাটলে কোনো ক্ষতি হবে না।
শ্রীীমঙ্গল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. মহিউদ্দিন বলেন, ঘূর্ণিঝড় ‘মিধিলির’ প্রভাবে আমনের তেমন একটা ক্ষতি হয়নি। চলতি মৌসুসে আবাদ হয়েছে ১৫ হাজার ৩৭৫ হেক্টর, তার মধ্যে ৮০% ধান পেকেছে, কৃষক কর্তন শুরু করেছে। কিন্তু আকস্মিক বৃষ্টির কারণে রবি সবজির বীজ তলার ক্ষতি হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে আলু চাষিদের।

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet