সংবাদ শিরোনাম :
জৈন্তাপুরের হরিপুর বাজারে চলছে প্রশাসনের নামে লাখ লাখ টাকা চাঁদা আদায় বাণিজ্য! বড়লেখায় ৪ ছিন্তাইকারী গ্রেপ্তার, ছিন্তাইকৃত সিএনজি ও টাকা উদ্ধার বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস উপলক্ষে লাউয়াছড়ায় পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান লাউয়াছড়া উদ্যানে জিপ উল্টে নৃত্য শিল্পীসহ আহত ৭ বাংলাদেশ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে : মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী কুলাউড়ায় নববধুকে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও ভাবী আটক সিলেট কিনব্রিজের নিচে সাইনবোর্ডে ঝুলন্ত যুবকের লাশ! শ্রীমঙ্গলে জগদ্বন্ধু আশ্রমের উদ্বোধন লক্ষাধিক পূণ্যার্থীর আগমন মৌলভীবাজারে ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ১ শ্রীমঙ্গলে শ্রী শ্রী প্রভু জগদ্বন্ধু আশ্রমের দ্বারোদঘাটন উৎসব, নগর সংকীর্তন ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত
সিলেটে প্রতিরাতে প্রবেশ করছে চোরাচালানের শত শত ট্রাক, নিরব ভূমিকায় এসএমপি পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসন? ভিডিও সহ

সিলেটে প্রতিরাতে প্রবেশ করছে চোরাচালানের শত শত ট্রাক, নিরব ভূমিকায় এসএমপি পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসন? ভিডিও সহ

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ

 

সিলেটে প্রতিরাতে প্রবেশ করছে চোরাচালানের ৩শ টি ট্রাক, নিরব ভূমিকায় এসএমপি পুলিশ! ভিডিও সহ

কামাল হাসেন: সিলেটের বিভিন্ন গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট সীমান্ত দিয়ে দেশে প্রবেশ করছে ভারতীয় চোরাচালানের হরেক রকম পণ্য। মাদক, অস্ত্র, চিনি, কাপড়, কসমেটিক্স কিছুই বাদ যাচ্ছেনা। রাত ১২ টা হলে সিলেট শহরে প্রবেশ করতে থাকে চোরাচালানের মালামাল ভর্তি ডিআই ট্রাকগুলো। সীমান্তের বর্ডারগার্ড বিজিবি, জেলা পুলিশের তিনটি থানা ও ডিবি পুলিশ। মহানগর পুলিশের শাহপরাণ থানা, এসএমপি ডিবি পুলিশ, শাহপরাণ পুলিশ ফাঁড়িসহ কোতয়ালী পুলিশকে ম্যানেজ করে নগরীর কালিঘাটে প্রায় ৩ শতাধিক মালামাল ভর্তি ডিআই ট্রাকগুলো প্রবেশ করে। সীমান্ত থেকে এসব মালামাল ভর্তি ট্রাকগুলো জৈন্তাপুর এবং হরিপুর বাজারে জড়ো হতে থাকে রাত ১০ থেকে। রাস্তায় থাকে প্রায় ৪০/৫০ জনের লাইনম্যান যারা রাতে মটরসাইকেল নিয়ে ঘুরে বেড়ায়। বিভিন্ন রকমের গাড়ি নিয়ে সিলেট মুখে আসতে থাকে চোরাকারবারিরা। গ্রিন সিগন্যাল পেলে দ্রুত গতিতে মাল বুঝাই ট্রাকগুলো নগরীর কালি ঘাটে প্রবেশ করে আনলোড করা হয়।আবার ঐ ট্রাকগুলো মাল আনার জন্য হরিপুরে চলে যায় ।
বটেশ্বর থেকে বন্দরবাজার পর্যন্ত রাস্তার মোড়ে মোড়ে দাড়িয়ে থাকে পুলিশের টহল দল। ট্রাক বা লাইনম্যান কাছে এসে নোটি ধরিয়ে দিলেই কাজ খতম পুলিশ গাড়িতে বসে থাকবে। তাদের সম্মুখ দিয়ে অনাসেই বিনা বাধায় ট্রাকগুলো নগরীতে প্রবেশ করতে থাকে। সম্প্রতি সময়ে এসব অবৈধ চোরাচালাসের গাড়ি ছাত্রলীগের কতিপয় নেতাকর্মীর পাহারায় নগরীতে প্রবেশ করতে দেখা যায়। এছাড়া বেশীর ভাগ গাড়ির সামনে পিছনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের দেখা যায়। গাড়ির ড্রাইভারগণ বলেন, ছাত্রলীগের পাহারায় তারা সিলেট নগরীতে বিনা বাধায় প্রবেশ করতে পারেন। প্রতিরাতে তারা দুটি করে ট্রিপ দিতে পারেন। মাঝে-মাঝে রাস্তায় টহলরত পুলিশ এসব ভোঙ্গার গাড়ির গতিরোধ করতে হাতে থাকা লাইট দিয়ে ইসারা করলেও গাড়ি গুলো কথনো থামেনা। পরে প্রাইভেটকার বা মোটর সাইকেলে এসে পুলিশ সদস্যদের হাতে টাকা দেন লাইনম্যানরা। দৃশ্যটি নিত্যদিনের।

https://fb.watch/kZvC5m86aF/?mibextid=Nif5oz

 

https://fb.watch/kZvT57kh13/?mibextid=Ni

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet