সংবাদ শিরোনাম :
নৈরাজ্য-বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির প্রতিবাদে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ মৌলভীবাজার জেলা জামাতের আমির গ্রেপ্তার শ্রীমঙ্গলে শিক্ষানবিশ আইনজীবী হত্যা মামলার ২ আসামিকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার সিলেট বাস টাার্মিনালে বিশাল জুয়ার আসর নেতৃত্বে রাজন,আল আমিন ও শ্রমিক নেতা সেলিম ছারছীনা দরবার শরীফের পীর সাহেবের ইন্তেকাল, জানাজা বৃহস্পতিবার তরুণদের দক্ষতা ও সম্ভাবনাই আগামীর বাংলাদেশের অর্থনীতির অন্যতম ভিত্তিঃ এমইউ ভিসি ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক মৌলভীবাজারে ডিবি ও পুলিশের অভিযানে মাদকসহ গ্রেপ্তার ৪ অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন অভিযানে ডেসকো ঝুঁকিপূর্ণ হওয়াতে মার্কেট ভাঙল শ্রীমঙ্গল পৌরসভা, নির্মাণ হবে অধুনিক মার্কেট কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা আমাদের জন্য যেমন সম্ভাবনা তেমনি চ্যালেঞ্জঃ এমইউ ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক
প্রতিদ্বন্দ্বীর প্রার্থীর বাড়ির সামনে অস্ত্রের মহড়া, গ্রেফতার ৩

প্রতিদ্বন্দ্বীর প্রার্থীর বাড়ির সামনে অস্ত্রের মহড়া, গ্রেফতার ৩

 

এ এ রানা::
সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের এক কাউন্সিলর প্রার্থীর বাসার সামনে অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেওয়ার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে নগরের বিমানবন্দর থানার পুলিশ।

শনিবার (১০ জুন) ভোর চারটা থেকে সাড়ে চারটার মধ্যে নগরের বনকলাপাড়া ও হাজীপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন বনকলাপাড়া এলাকার আতিকুর রহমান (৪২), জুবের আহমদ (৩৮) ও হাজীপাড়া এলাকার নুরুজ্জামান (৩৪)। পুলিশের ভাষ্য, গ্রেফতার জুবের আহমদ ও নুরুজ্জামানের অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেওয়ার বিষয়টি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও দেখে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এ ঘটনায় গতকাল দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে বিমানবন্দর থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আফতাব হোসেন খানকে প্রধান আসামি করা হয়। এ ছাড়া অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে ২০ থেকে ২৫ জনকে। গ্রেফতার ব্যক্তিরা আফতাব হোসেন খানের অনুসারী হিসেবে এলাকায় পরিচিত।

তিনজনকে গ্রেপ্তার করার বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (গণমাধ্যম) সুদীপ দাস বলেন, অন্য আসামিদের গ্রেফতার করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

সিলেটের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী সায়ীদ মো. আব্দুল্লাহর বাসার সামনে অস্ত্রসহ মহড়া দেওয়া হচ্ছে। বর্তমান কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খাঁন ও তার অনুসারীরা ওই মহড়া দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন সায়ীদ মো. আব্দুল্লাহ।

পুলিশ ও রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ওয়ার্ডটির কাউন্সিলর প্রার্থী সায়ীদ মো. আবদুল্লাহ তার বাসার সামনে আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আফতাব হোসেন খান ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেওয়ার পাশাপাশি ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ করেন রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে। শুক্রবার বেলা সাড়ে পাঁচটার দিকে এ অভিযোগ দেওয়ার পরপরই রিটার্নিং কর্মকর্তা পুলিশকে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন। এরপরই পুলিশ সায়ীদ মো. আবদুল্লাহর অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করে।

স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন-২০০৯ এবং আইনশৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) (সংশোধন) আইন-২০১৯ অনুযায়ী, ত্রাস সৃষ্টি করে ভয়ভীতি ছড়ানোসহ নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করার অপরাধে মামলাটি হয়েছে।

গতকাল রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগে কাউন্সিলর প্রার্থী সায়ীদ মো. আবদুল্লাহ বলেন, মঙ্গলবার আনুমানিক সকাল ছয়টার দিকে বর্তমান কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খানের নেতৃত্বে ১০ থেকে ১২টি মোটরসাইকেলে ২০ থেকে ২৫ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী তার বাসার ফটকের সামনে আসে। এ সময় সন্ত্রাসীরা বন্দুক তাক করে তাকে (আবদুল্লাহ) ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দেয়। পাশাপাশি ঘরবাড়ি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়।

এদিকে অস্ত্রসহ মহড়া দেওয়ার তিনটি ভিডিও গত বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। এসব ভিডিওর একটিতে সায়ীদ মো. আবদুল্লাহর বাড়ির সামনে আফতাব হোসেনকে মহড়া দিতে দেখা গেছে।

সিলেট সিটির ৭ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে আফতাব ঘুড়ি প্রতীক, সায়ীদ মো. আবদুল্লাহ লাটিম প্রতীক ও মো. জাহিদ খান সায়েক ঠেলাগাড়ি প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ২১ জুন এখানে ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet