সংবাদ শিরোনাম :
লাউয়াছড়া উদ্যানে জিপ উল্টে নৃত্য শিল্পীসহ আহত ৭ বাংলাদেশ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে : মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী কুলাউড়ায় নববধুকে হত্যার অভিযোগে স্বামী ও ভাবী আটক সিলেট কিনব্রিজের নিচে সাইনবোর্ডে ঝুলন্ত যুবকের লাশ! শ্রীমঙ্গলে জগদ্বন্ধু আশ্রমের উদ্বোধন লক্ষাধিক পূণ্যার্থীর আগমন মৌলভীবাজারে ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ১ শ্রীমঙ্গলে শ্রী শ্রী প্রভু জগদ্বন্ধু আশ্রমের দ্বারোদঘাটন উৎসব, নগর সংকীর্তন ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গলে দ্বার উদঘাটন হলো বাংলাদেশে প্রথম শ্রীশ্রী প্রভু জগদ্ববন্ধু আশ্রম ও মিশনের সিলেটে আবাসিক হোটেলগুলোতে দেদারসে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ মৌলভীবাজারে ও শ্রীমঙ্গলে জাতীয় বীমা দিবস পালিত
নির্বাচনের দাবিতে শ্রীমঙ্গল চা শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয় ঘেরাও,এক সপ্তাহের আল্টিমেটাম

নির্বাচনের দাবিতে শ্রীমঙ্গল চা শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয় ঘেরাও,এক সপ্তাহের আল্টিমেটাম

প্রতিবেদন,এম.মুসলিম চৌধুরী:

চা শ্রমিকদের ১৯ মাসের বকেয়া মজুরী, নতুন চুক্তি, সদস্য চাঁদার হিসাব, মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটির অপসারণ ও দ্রুত নির্বাচনের দাবীতে শ্রীমঙ্গলে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে অবস্থিত চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেন সাধারন চা শ্রমিকের ব্যানারে আন্দোলনকারীরা শ্রমিকরা।
আন্দোলনকারীরা বর্তমান চা শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যকরী কমিটির নির্বাচনের দাবীতে ৭ দিনের আল্টিমেটাম বেঁধে দেয়৷
পরে আন্দোলনরত চা শ্রমিকদের একটি প্রতিনিধিদল চা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতির কাছে একটি স্মারকলিপি জমা দেন৷ সাধারন চা শ্রমিকদের ব্যানারে প্রতিবাদ মিছিল চা শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয় ঘেরাও করলে এসময় এক উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।
আন্দোলনরত চা শ্রমিকরা বর্তমান কমিটির বিরুদ্ধে নানান শ্লোগান দিতে থাকে এবং কার্যালয় প্রবেশের চেষ্টা চালায়। এসময় কার্যালয়ের ভেতরে অবস্থান করা বর্তমান কমিটির সদস্যরাও পাল্টা শ্লোগান দিতে থাকেন৷
পরে পুলিশ এসে হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে৷
আন্দোলনরত চা শ্রমিকরা জানান, মেয়াদ উত্তীর্ন হওয়ার পর দীর্ঘসময় পেরুনোর পরও নির্বাচন না দেওয়ায় তাঁরা এই কর্মসূচী পালন করছেন৷ আন্দোলনরত শ্রমিকরা বলেন, ১৫জানুয়ারী পর্যন্ত আমরা তাঁদের আলটিমেটাম দিয়েছি ওই সময়ের মধ্যে বর্তমান মেয়াদউত্তীর্ন কমিটি নির্বাচনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত না নিলে আমরা বৃহত্তর কর্মসূচী ঘোষনা করবো। পাশাপাশি আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।
সাধারন চা শ্রমিকের ব্যানারে আন্দোলনকারী একাংশের নেতা রাজঘাট ইউনিয়ন প্যানেল চেয়ারম্যান সেলিম আহমেদ বলেন, চা শ্রমিকরা গত আগস্ট মাসে আন্দোলন করে তাঁদের মজুরি ১২০ থেকে বাড়িয়ে ১৭০ টাকা আদায় করেছিলো৷ কিন্তু বর্তমান চা শ্রমিক ইউনিয়ন কমিটি মালিকপক্ষের সাথে চুক্তি করে সেই টাকা আদায় করতে ব্যর্থ হয়েছে। পাশাপাশি নির্বাচন না হওয়াও বর্তমান কমিটি স্বেচ্ছাচারীভাবে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নিচ্ছে৷ অনির্বাচিতরা চা শ্রমিক ইউনিয়নের দায়িত্ব জোর করে দখল নিয়ে রেখেছে। আমরা বার বার নির্বাচনের দাবী জানিয়ে আসছি কিন্তু নির্বাচন তারা দিচ্ছেন না। আমরা আজ (রোববার) নির্বাচনের দাবীতে চা শ্রমিক ইউনিয়ন ঘেরাও করে আল্টিমেটাম দিয়েছি।
আগামী ১৫ জানুয়ারির মধ্যে যদি তারা (বর্তমান কমিটি) দায়িত্ব না ছাড়ে, যদি হিসাব না দেয়, তাহলে আমরা সারা বাংলাদেশে চা বাগান বন্ধ রাখবো, আমাদের শ্রমিক চাঁদা বন্ধ থাকবে, আমরা এই কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সবাই অবস্থান নিবো।
চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বিজয় হাজরা বলেন, আমরা আমাদের বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়াার তিনমাস আগে নিয়ম অনুযায়ী নির্বাচন আয়োজনের জন্য শ্রম অধিদপ্তরে চিঠি দিয়েছি৷ কিন্তু সরকার থেকে আমাদের নির্বাচন আয়োজনের জন্য অর্থ বরাদ্দ না করায় নির্বাচন হয়নি৷ এখন আমরা গঠনতন্ত্র সংশোধন করে সরকার এবং আমাদের যৌথ অর্থায়নে নির্বাচন আয়োজনের চেষ্টা করছি৷
তিনি আরো বলেন, তারা আমরা আশা করছেন, বকেয়া মজুরির বিষয়টি নিস্পত্তি হওয়ার পরপরই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে৷
নির্বাচনের ব্যাপারে জানতে সিলেট বিভাগীয় শ্রম অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নাহিদুল ইসলামের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet