সংবাদ শিরোনাম :
১৭ পদাতিক ডিভিশন সিলেট অঞ্চলের তত্ত্বাবধানে আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস-২০২৪ পালন করা হয়েছে । শ্রীমঙ্গলে শান্তিপূর্ন ভোট গ্রহণ শেষে চলছে গননা সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার  কর্তৃক সহকারী পুলিশ কমিশনার কোতোয়ালী মডেল থানা কার্যালয় পরিদর্শন শ্রীমঙ্গলে দুই ভোট কেন্দ্রের চারজন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি হযরত শাহজালাল (রহঃ) এর মাজার শরীফের ৭০৫তম পবিত্র ওরস এর আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পরিদর্শন করেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার শেখ হাসিনার ৪৩তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ইউকে ওয়েলস আওয়ামী লীগের সভা অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গলে র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবা, মদ ও পিস্তলসহ যুক্তরাজ্য নাগরিক আটক কুলাউড়ায় ভোক্তার অভিযানে ৩ প্রতিষ্টানকে জরিমানা যুক্তরাজ্যের বাকিংহাম প্যালেসে রাজপরিবারের পার্টিতে আমন্ত্রন পেলেন শ্রীমঙ্গলের অলিউল কবি কাজী নজরুলের জন্মবার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের আলোচনা সভা
নগরিতে  ডিবি পুলিশের অভিযান অব্যাহত!! ::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::: দক্ষিণ সুরমায় কুখ্যাত জুয়ারী আলআমিন ও নজরুলের খুঁটির জোর কোথায়।

নগরিতে  ডিবি পুলিশের অভিযান অব্যাহত!! ::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::::: দক্ষিণ সুরমায় কুখ্যাত জুয়ারী আলআমিন ও নজরুলের খুঁটির জোর কোথায়।

দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধিঃ

সিলেটে নগরীতে একাদিকবার ডিবির চৌকুস অভিযানের ফলে অনেক জুয়ারী ইতোমধ্যে গা- ডাকা দিলেও কিছু সংখ্যক জুয়ারী স্থানীয় প্রশাসন কদমতলী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল হোসেনকে ম্যানেজ করে ডিবির চোখ ফাঁকি দিয়ে বেশ দাপটের সাথে প্রকাশ্যে চালিয়ে যাচ্ছে জমজমাট এসব অবৈধ জুয়ার আসর।

দক্ষিণ সুরমার শীর্ষ জুয়ারী কাশেম ও তার মেয়ে সহ কদমতলী ফেরিঘাটের কুখ্যাত জুয়ারী হারুন, মিতালী পরিবহনের মালিক ও শীলং তীরের ডিলার নজরুল ডিবির অভিযানে আটক হওয়ার পর সাধারণ মানুষের মধ্যে স্বস্তি ও প্রশাসনের প্রতি আস্তা ফিরে আসে। অপরাধীরা জামিনে বেরিয়ে এসে আবারো শিলং তীর সহ জুয়া খেলার আস্তানা গড়ে তুলার পায়তারা করছে। তবে জুয়ারী হারুনকে এলাকায় কোনোভাবেই আর জুয়ার আস্তানা করতে দেয়া হচ্ছে না বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়।
তবে ইতোমধ্যে ডিবির চোখ ফাঁকি দিয়ে শীলং তীরের ডিলার নাট্যঅভিনেতা নামদারী শীর্ষ জুয়ারী আল-আমিন, জুয়ারী সাইফুল মিতালী পরিবহনের নজরুলের জুয়ার আস্তানা চাঁদনীঘাট মাছবাজার মালিকানা পরিবর্তন করে উত্তরসুরমা ট্রেডসেন্টার কাঁচা বাজারের শীলং তীরের জুয়ার আস্তানার মালিকানা নিয়েছে মিতালী পরিবহনের নজরুল। যমুনা মার্কেটের সড়কের অপরপারে রেলের কাঁটাতার কেটে প্লাস্টিকের বস্তার ঘর তৈরী করে শীলং তীরের জুয়ার আস্তানা বসানো হয়েছে। এআস্তানার মালিকানা মিতালী পরিবহনের নজরুল ও নাট্যঅভিনেতা নামধারী কুখ্যাত জুয়ারী চিনতাইকারীদের গডফাদার আলআমিনের ।

প্রকাশ্যে জুয়া খেলার সত্যতা জানতে “হলি সিলেটের চৌকুস একটি টিম আজ সন্ধ্যারপর সরেজমিনে দক্ষিণ সুরমায় ঘুরে এসে জানান, যমুনা মার্কেটের সামনে প্লাস্টিকের বস্তার ছাউনি দিয়ে তৈরী ঘরের সানে রেষ্টুরেন্ট আর পিছনে শীলং তীর ও জান্ডুমান্ডু নামক জুয়া চলছে প্রকাশ্যে এছাড়া এর পাশেই ক্যারাম বোর্ড বসিয়ে বাজি ধরে জুয়া খেলা হচ্ছে দিবালোকে ।

এছাড়া চাঁদনীঘাট মাছ বাজারের ভিতরে চলছে শীলং তীর খেলা। এসব জুয়ার আস্তানানায় বিকাল দু ঘটিকার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত প্রকাশ্যে চলে শীলং তীর কাটাকাটি ও ক্যারাম বোর্ড নামক প্রতারনা মূলক জুয়া খেলা। কদমতলী ফাঁড়ি থেকে মাত্র কয়েশ গজ দূরে কিভাবে প্রকাশ্যে এসব জুয়া খেলা হয় এ বিষয়ে জানতে একাধিক বার কদমতলী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল হোসেনের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি অজ্ঞাতকর কারণে ফোনটি রিসিভ করেননী।

এদিকে ফুটপাতের এক দোকানদার নাম পরিচয় গোপন রাখার শর্তে হলি সিলেটকে জানান, রাতে ও সকালে দূর দূরান্ত থেকে আসা লোকজন ও পথচারীদের লোটপাট, চুরি ডাকাতি ও চিনতাইয়ের কবলে পরতে হয়।
আর এসব নেক্কারজনক অপরাধের সাথে জড়িয়ে পরছে অবৈধ শীলং তীর ও নাইট তীর খেলার সাথে সম্পৃক্ত যুব সমাজ। অবৈধ শীলং তীর খেলা ও মদ গাঁজা, পেন্সিডিল সহ নেশাদ্রব্যে পন্যের টাকা যোগাতে তারা বেঁচে নেয় নানান অপরাধ মুলক কর্মকান্ড। তিনি আরোও জানান, এসব অপরাধীদের আশ্রয় প্রশ্রয় ও নেশায় আসক্ত ও কোটিপতি হওয়ার লোভনীয় সপ্ন দেখিয়ে কৌশলে আলআমিন- নজরুল তাদের রাম রাজত্ব কায়েম করে চলেছে। তিনি হলি সিলেট কে আরোও বলেন, আলআমিন, নজরুল ও তিন তাস খেলার গডফাদার জামাল তাহের গংরা দক্ষিণ সুরমার একটি বড় অপরাধ সিন্ডিকেটের নাম, ফাঁড়ির পুলিশ গাড়ী নিয়ে তাদের পাশদিয়ে আসা যাওয়া করলেও এসব অপরাধীদের দেখেও না দেখার বান করে চলে যায়।

এলাকার নিরিহ জনরা জানান, তাদের সিন্ডিকেটের ক্ষমতাও অনেক এলাকার কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস রাখেনা। কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বল্লে তাকে শারিরীক ও মানষিক ভাবে হতে হয় নির্যাতিত ও নাজেহাল। বিপদে পড়ে পুলিশ ফাঁড়ির সাহায্য নিতে চাইলে তাও পাওয়া যায়না দেখানো হয় নানা অজুহাত। চলবে…….?

 

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet