সংবাদ শিরোনাম :
সিলেটের বিভিন্ন সীমান্তের চোরাকারবারিদের দৌরাত্ম্যের ২য় পর্বে জৈন্তাপুর উপজেলা বড়লেখায় পুলিশের অভিযানে ২০০ পিস ইয়াবাসহ আটক ১ সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সচেতন নাগরিক ফোরামের মানববন্ধন পরিবেশ অধিদপ্তরের অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার আহবান চা কন্যার অজানা তথ্য নিয়ে আল ইকরাম নয়নের ভিডিও কন্টেন্ট সবজি ক্ষেতের জ্বালে আটকে পড়া দাঁড়াশ সাপ উদ্ধার দক্ষিণ সুরমা থেকে ডিবি পুলিশের অভিযানে ০৩ কেজি গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ি গ্রেফতার দক্ষিণ সুরমা থেকে ডিবি পুলিশের অভিযানে ০৩ কেজি গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ি গ্রেফতার ডিবির অভিযানে খালিঘাট বস্তাপট্টি শরিফ ও জামালের  জুয়ার আস্তানা থেকে  খেলার সামগ্রী সহ ৩ জুয়ারী গ্রেফতার! ঈদ ও নববর্ষের টানা ছুটিতে চায়ের রাজ্যে ঢল নেমেছে পর্যটকের অবশেষে দক্ষিণ সুরমার শীর্ষ জুয়ারী কাশেমসহ পুলিশের হাতে আটক-৬, এখনো বহাল নজরুল-জামাল-অন্তরের জুয়ার প্রতারণা,
প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে আবারও শুরু দক্ষিণ সুরমার শীর্ষ জুয়ারী হারুনের জুয়ার প্রতারণা

প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে আবারও শুরু দক্ষিণ সুরমার শীর্ষ জুয়ারী হারুনের জুয়ার প্রতারণা

এ এ রানা::
দেড়মাস বন্ধ থাকার পর সংশ্লিষ্ট প্রশাসন সহ স্থানীয় কাউন্সিলরকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে
সিলেট নগরীর দক্ষিণ সুরমার ফেরিঘাট আস্তানায় আবারও শুরু শীর্ষ জুয়ারী হারুনের জুয়ার প্রতারণা।

বিগত দুই মাস যাবৎ ডিবি পুলিশের সাড়াশি অভিযানে সিলেটের উত্তর ও দক্ষিণ সুরমার সকল জুয়ার আস্তানা গুড়িয়ে দেয়ার পর সিলেটের সচেতন মানুষ স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন, সেই সাথে ডিবি পুলিশকে ধন্যবাদ জানান। এসময় ডিবির অভিযানে শীর্ষ জুয়ারী হারুন, নজরুল সহ শতাধিক জুয়ারীকে আটক করা হয়। আটককৃতদের জুয়ার আইনে আদালতে প্রেরণ করা হলে জরিমানা দিয়ে জুয়ারীরা আদালত থেকে জামিনে বেরিয়ে আসে। এমন পরিস্থিতিতে অন্যান্য জুয়ারীরা জুয়ার বোর্ড খুলতে সাহস না পেলেও দক্ষিণ সুরমার ফেরিঘাট আস্তানার শীর্ষ জুয়ারী হারুন আবারও জুয়ার বোর্ড খুলে প্রতারণা শুরু করেছে।

গত ২৫ ডিসেম্বর সোমবার সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগে দক্ষিণ সুরমা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবুল হোসেনের পরিচালনায় ও দক্ষিণ সুরমা থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো. ইয়ারদৌস হাসানের সভাপতিত্বে বিট পুলিশিং ও কমিউনিটি পুলিশিং এর সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পেনেল মেয়র তৌফিক বক্স লিপন বলেন
ওয়ার্ডের বিভিন্ন স্থানে যে সব জুয়ার আস্তানা বিদ্যমান, সবগুলো আস্তানা জুয়াড়ী হারুনের প্রত্যক্ষ মদদে চলছে বলে তিনি স্বীকার করে বলেন জুয়াড়ী হারুনের হীন কার্যকলাপে স্থানীয় যুব-সমাজ, এলাকার সাধারণ মানুষ অতিষ্ট,ভোর থেকে রাত পর্যন্ত ২৬ নং ওয়ার্ডের জুয়ার আস্তানা গুলোতে রীতিমতো প্রতিযোগিতা করে চলছে রমরমা জুয়ার প্রতারণা। উঠতি বয়সী তরুণরা এসব আস্তানায় প্রবেশের মাধ্যমে তাদের জীবন ধংসের পথে ধাবিত করছে। কিছুদিন পূর্বে সিলেট মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ এসব আস্তানায় অভিযান চালিয়ে হারুনসহ বেশ কয়েকজনকে আটক করলেও জামিনে বেরিয়ে জুয়াড়ী হারুন পূনরায় তার অধীনস্ত আস্তানাগুলো সচল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে, এই হারুনকে দক্ষিণ সুরমা থেকে বিতাড়িত করার জন্য তিনি দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশকে অনুরোধ করেন।

বিতারিত হওয়াতো দূরের কথা বরং কাউন্সিলরকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে তার এই বক্তব্যের ১৭ দিনের মাথায় হারুন স্থানীয় প্রশাসনের
সহযোগিতায় ১২ জানুয়ারী থেকে আবারও প্রকাশ্যে চালু করেছে জুয়ার প্রতারণা ব্যবসা।

হারুনের জুয়ার প্রতারণার ব্যপারে ২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পেনেল মেয়র তৌফিক বক্স লিপন এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই প্রতিবেদককে বলেন জুয়া চালুর বিষয়ে আমার জানা নেই, তবে আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি। শুধু হারুন কেন দক্ষিণ সুরমায় কোন জুয়ার বোর্ড
চালু হতে দিবোনা।

জুয়া চালুর বিষয়ে জানতে দক্ষিণ সুরমার কদমতলী ফাঁড়ি ইনচার্জ আবুল হোসেনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য দীর্ঘদিন থেকে জুয়ারীদের বিরুদ্ধে সাপ্তাহিক হলি সিলেট ধারাবাহিক সংবাদ প্রকাশ করে আসছে। বিস্তারিত আসছে —–

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet