সংবাদ শিরোনাম :
শ্রীমঙ্গলে শতাধিক লেবুগাছ কেটে ফেলে দূর্বত্তরা।

শ্রীমঙ্গলে শতাধিক লেবুগাছ কেটে ফেলে দূর্বত্তরা।

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ

শ্রীমঙ্গলে শ্যামল পাল নামের এক লেবু বাগান ব্যবসায়ীর ৭০ গাছ কেটে ফেলেছে দুষ্কৃতিকারীরা।

বছর ধরে বাগানটি সৃজন করে ফসল বিক্রি করার ঠিক আগ মুহূর্তে গত ২২ ডিসেম্বর রাতের কোন এক সময় ফলন্ত এসব লেবুগাছ কেটে ফেলায় প্রায় লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার
৩নং সদর ইউনিয়ন বিষামনি শ্যামল পালের নিজ মালিকানাধীন ৫০ কেয়ার জমিতে লেবু বাগান পাশাপাশি আনারস রোপন করেছেন তিনি।

শনিবার সরেজমিন বাগানে গিয়ে দেখা যায়, সবুজে ঘেরা বাগানের বিস্তৃর্ণ এলাকাজুড়ে কেটে ফেলা ৭০ লেবু গাছ পড়ে আছে। দুষ্কৃতীরা বাগানের লেবু গাছ কেটেই খান্ত হয়নি। লেবু গাছের চারা রোপন করা গাছও উপড়ে ফেলে দিয়েছে।

এসময় বাগান মালিক শ্যামল পালের ছেলে শাওন পাল বলেন শ্রীমঙ্গল থানাধীন বিষামনি সাকিনে আমার বাবার মালিকানাধীন ৫০ কেয়ার জায়গায় লেবু ও আনারস বাগান রয়েছে, বাগানের ম্যানেজার হিসেবে সুজিত কুমার দে কর্মরত আছেন। তিনি গত ২২ ডিসেম্বর বিকাল আনুমানিক ৫ ঘটিকার সময় আমার বাগানের কাজের লোকজন প্রতিদিনের ন্যায় বাগানে কাজ করিয়া বাড়িতে ফিরে যায়। পরদিন ২৩ ডিসেম্বর সকাল আনুমানিক ১০ ঘটিকার সময় আমি ও বাগানের ম্যানেজার বাগান গেলে দেখতে পাই বাগানের ভিতর পূর্ব দক্ষিন পার্শ্বে লাগাতার আনুমানিক ৭০ টি লেবু গাছ কাটা। যাহার আনুমানিক ক্ষতির পরিমান ১,০০,০০০/-(এক লক্ষ) টাকা। তারপর আমি বিষয়টি আশপাশের লোকজন ও ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য শফিকুল ইসলাম লিটন সহ সবাই অবগত করিলে ২৪ ডিসেম্বর উপরোক্ত লোকজন ঘটনাস্থলে যাইয়া ঘটনার বিস্তারিত দেখেন।

তিনি আরও বলেন অজ্ঞাতনামা বিবাদীরা ২২ ডিসেম্বর বিকাল আনুমানিক ০৫.০০ ঘটিকা হইতে ২৩ ডিসেম্বর সকাল আনুমানিক ১০.০০ ঘটিকার মধ্যে যে কোন সময় আমার লেবু বাগান হইতে আনুমানিক ৮০ টি লেবু গাছ কাটিয়া আনুমানিক ১,০০,০০০/-(এক লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে। আমি বিষয়টি এলাকার গন্যমান্য লোকজনদের অবগত করিয়া ঘটনার রহস্য উদঘাটনসহ বিবাদীদের সনাক্তের জন্য শ্রীমঙ্গল থানায় অভিযোগ দায়ের করি।

পরে তিনি এ ঘটনা স্থানীয় ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম লিটনকে অবহিত করলে ইউপি সদস্য স্থানীয়দেন ও শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাগান পরিদর্শন করেন।

দুষ্কৃতিকারীদের শনাক্ত ও রহস্য উদঘাটনের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত বাগান মালিক শ্যামল পালের ছেলে শাওন পাল শ্রীমঙ্গল থানা একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet