সংবাদ শিরোনাম :
শ্রীমঙ্গলে জ্ঞানমুদ্রা বেদ ও গীতা পরিবার এর প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও সংবর্ধনা শ্রীমঙ্গলে এক দিনে ৩টি বন্যপ্রাণী উদ্ধার শ্রীমঙ্গলে ঠাকুর ঘর থেকে পাতি বেত আঁচড়া সাপ উদ্ধার বন্যার্তদের মাঝে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশের খাবার বিতরণ মৌলভীবাজারে বন্যার পানিতে ডুবে কিশোর ও শিশুর মৃত্যু শ্রীমঙ্গলে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও নবীন বরণ অনুষ্টান মৌলভীবাজারের পাহাড়ী ঢল ও ভারী বৃষ্টিপাতে ৩৩২ গ্রাম প্লাবিত ছাতকে বন্যার পানিতে থৈ-থৈ করছে উপজেলার সর্বত্র, ঘর-বাড়ি রাস্তা-ঘাট সহ বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত,পানি বন্দী হাজার হাজার মানুষ ৩ দিনব্যাপী মার্শাল আর্ট সেমিনারের সমাপনী অনুষ্ঠান ও সনদ বিতরণ মৌলভীবাজারে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে শতাধিক পরিবারের ঈদ উদযাপন
শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ আসনে সপ্তম বারের মতো মনোনয়ন জমা দিলেন উপাধ্যক্ষ ড. মোঃ আব্দুস শহীদ

শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ আসনে সপ্তম বারের মতো মনোনয়ন জমা দিলেন উপাধ্যক্ষ ড. মোঃ আব্দুস শহীদ

 

ঝলক দত্ত, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি:

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-৪ (শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ) নির্বাচনী আসনে ৭ম বারের মতো আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ ড. মো: আব্দুস শহীদ। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) দুপুর ১টায় সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলী রাজীব মাহমুদ মিঠুন এর কার্যালয়ে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। মনোনয়ন ফরম জমার দেয়ার সময় নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মোঃ আব্দুস শহীদের সাথে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অর্ধেন্দু কুমার দেব, সম্পাদক জগৎজ্যোতি ধর শুভ্র, যুগ্ম সম্পাদক আকরাম খাঁনসহ অন্যান্য নেতা কর্মিরা। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার আগে সকাল ১১ ঘটিকায় শ্রীমঙ্গল জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামীলীগের সকল নেতাকর্মীদের নিয়ে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগ সহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীবৃন্দ। মৌলভীবাজার- ৪ (শ্রীমঙ্গল- কমলগঞ্জ) আসনে এবার ৭ বারের মতো আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। এর আগে পরপর ৬ বার তিনি এই আসন থেকে নৌকা প্রতীকে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হয়ে সরকার দলীয় চিফ হুইপসহ গুরত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ মৌলভীবাজার-৪ আসন থেকে ১৯৯১ সালে প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। একই আসন থেকে এরপর ১৯৯৬, ২০০১, ২০০৮, ২০১৪, ২০১৮ সালে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। ১৯৯১ সালে আব্দুস শহীদের সঙ্গে এই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সাবেক অর্থমন্ত্রী এম. সাইফুর রহমানের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছিল। ২০০৯- ২০১৪ পর্যন্ত তিনি জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ, ২০০১- ২০০৬ পর্যন্ত সংসদে বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ, এবং ১৯৯৬- ২০০১ পর্যন্ত জাতীয় সংসদে হুইপের দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে তিনি সংসদের বিভিন্ন পদের দায়িত্বে ছিলেন ২০০১-২০১৯ পর্যন্ত। তিনি জাতীয় সংসদের সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত কমিটির সভাপতি ও ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet