সংবাদ শিরোনাম :
শ্রীমঙ্গলে পূর্বশত্রুতার জেরে হামলা, বাড়ীর প্রাচীর ভাঙচুর মৌলভীবাজারে পুলিশ লাইনে পোড়ামাটির শিল্পকর্ম উদ্বোধন করলেন আইজিপি শ্রীমঙ্গলে স্কুল বাজেট প্রণয়নে নাগরিক সচেতনতামুলক টাউনহল সভা সিলেটের কালিঘাট পিয়াজ পট্টি  থেকে ৫ জুয়াড়ি আটক মৌলবভীবাজারে মসজিদের ইমামকে চাকরি ছড়তে মারধর ও হুমকির অভিযোগ কুলাউড়ায় হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ আটক ৩ সিলেটে নগরীর দক্ষিণ সুরমা থেকে এক যুবক নিখোঁজ সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ শ্রেণি শিক্ষক শ্রীমঙ্গলের মোহাম্মদ আল আমিন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিল শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রেসক্লাব কখনো সাংবাদিক কখনো নাটকের নায়ক কখনো ডিবির সোর্স কে এই সোহাগ?
দক্ষিন সুরমায় ৬ বছরের শিশু ধর্ষিত থানায় মামলা

দক্ষিন সুরমায় ৬ বছরের শিশু ধর্ষিত থানায় মামলা

 

এ এ রানা::
সিলেট মহানগরীর দক্ষিন সুরমা এলাকায় ছদ্ম নাম
নুপুর নামের (৬) বছরের এক শিশুকে ধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রতিবেশি রাজু(১৭) নামক এক যুবকের বিরোদ্ধে। বাদী কর্তৃক থানায় দায়ের করা মামলা সুত্রে জানাযায় গত ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ইং তারিখ রোজ বৃহস্পতিবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে ২৬ নং ওয়ার্ডের কদমতলী ঝালোপাড়া এলাকার সফিক মিয়ার কলোনীতে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত রাজু, ও তার বাবা মোস্তাক মিয়া পলাতক রয়েছেন।

সুত্রে জানাযায় লিপি বেগম ও জামাল উদ্দিন নামের এক দম্পতি ৩ বছর যাবৎ নগরীর দক্ষিণ সুরমার কদমতলী এলাকার ঝালোপাড়ায় সফিক মিয়ার কলোনীতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছেন।

তাদের মূলবাড়ী সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার পশ্চিম শহিদপুর ( প্রকাশিত ইলামেরগাও) নামক গ্রামে।
লিপি বেগম বিভিন্ন বাসায় ঝিয়ের কাজ করেন, আর তার স্বামী একজন ভ্যান চালক, তাই তারা সবসময় বাসায় থাকতে পারেননা, জীবিকা নির্বাহের জন্য ছোট তিন বাচ্চাকে বাসায় রেখে কাজে চলে যান। দিনের বেলায় কলোনির সবাই যার যার কর্মস্থলে চলে গেলে সমস্ত বাসা ফাঁকা থাকে। এই সুযোগে পাশ্ববর্তী রুমের নতুন ভারটিয়া মোস্তাক মিয়া’র পুত্র রাজু (১৭) গত ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ইং রোজ বৃহস্পতিবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে বারোটার দিকে লিপি বেগমের ছোট মেয়ে ছন্দ নাম নুপুর (৬)কে একা পেয়ে মোবাইল দেখানোর কথা বলে তাহার রুমে ডেকে নিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়।

পরে নুপুরের পরনের কাপড় খুলে তাহার যৌনাঙ্গে তেল দিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় নুপুর চিৎকার করলেও বাসায় লোক না থাকায় ভিকটিমের কান্না কেউ শুনতে পায়নি। রাজুর মূলবাড়ী নগরীর দক্ষিন সুরমার ২৬ নং ওয়ার্ডের ঝালোপাড়া এলাকায়। রাতে নুপুরের(ছন্দ নাম) মা লিপি বেগম বাসায় ফিরে মেয়েকে খাবারের কথা বললে সে খাবার খেতে চায়না। কেন খেতে চায়না জিজ্ঞেস করলে সে কান্না জড়িত কন্ঠে বলে পাশের ভাড়াটিয়া রাজু তাহার সাথে খারাপ কাজ করেছে। তখন লিপি বেগম তার মেয়ের কাপড় খুলে দেখেন তাহার গোপনাঙ্গ ফুলে গেছে এবং লাল হয়ে আছে। বিষয়টি তিনি বাসার মালিক শফিক মিয়ার ছোট বোন লাকিকে অবগত করেন। লাকি বিষয়টি রাজুর বাবা মুস্তাককে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন আমি কিছু জানি না। পরে তিনি তার স্ত্রীকে ফোন লাগিয়ে দেন। তার স্ত্রী লিপি বেগমকে বলে তুমি তোমার স্বামীকে কিছু বলবে না এবং বাসার কাউকে কিছু বলবে না আমি সোমবার আসতেছি সমাধান করে দিবো। লিপি সরল বিশ্বাসে তার কথায় অপেক্ষা করতে থাকেন, কিন্তু রাতেই ছেলেকে নিয়ে মুস্তাক বাসা তালা মেরে পালিয়ে যায়। তবুও অপেক্ষা করেন লিপি, পরে তিনি শুক্রবার রাতে তার স্বামীকে অবগত করেন। স্বামী জামাল উদ্দিন বিষয়টি শুনে শনিবার মেয়েকে সাথে নিয়ে দক্ষিণ সুরমা থানায় গিয়ে হাজির হয়ে ঘটনাটি খুলে বলেন। পুলিশ তাদের নাম ঠিকানা রেখে মেয়েকে ওসমানী হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করতে পরামর্শ দেয়।

তাদের পরামর্শে ঐদিন ৩০ সেপ্টেম্বর শনিবার রাতে মেয়েকে ওসমানীতে ভর্তি করেন লিপি জামাল দম্পতি। ০১ অক্টোবর রাতে ওসমানী থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হলে তারা বাসায় ফিরে আসেন, এবং বিবাদীর গার্জিয়ানের অপেক্ষায় থাকেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য হলেও সত্য যে, বিবাদীরা কোন যোগাযোগই করেনা দরিদ্র দম্পতিদের সাথে। অবশেষে ০৩ অক্টোবর মঙ্গলবার দক্ষিন সুরমা থানায় হাজির হয়ে বিবাদীদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন ধর্ষণ দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet