সংবাদ শিরোনাম :
মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি শিক্ষার পাশাপাশি ক্রীড়াঙ্গনেও অবদান রাখতে চায়ঃ ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক

মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি শিক্ষার পাশাপাশি ক্রীড়াঙ্গনেও অবদান রাখতে চায়ঃ ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ

সিলেট তথা দেশের অন্যতম শীর্ষ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেছেন, বৃহত্তর সিলেটের মধ্যে হবিগঞ্জ একটি সম্ভাবনাময় ও গতিশীল জেলা। সিলেট বিভাগের প্রবেশদ্বার শিল্পোন্নত ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধশালী জেলাটির অনেক শিক্ষার্থী মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটিতে লেখাপড়া করছেন; আবার অনেকে লেখাপড়া শেষ করে দেশে-বিদেশে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি হবিগঞ্জ জেলার স্কুল ও কলেজসমূহে শিক্ষা বিশেষতঃ প্রযুক্তিগত শিক্ষার প্রসারে সামনের দিনগুলোতে আরো ভূমিকা রাখবে। গত জানুয়ারী মাসে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইলেট্রোনিক এন্ড ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি টিম হবিগঞ্জ জেলার হাইস্কুল ও কলেজসমূহে গিয়ে সায়েন্স অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণের জন্য উদ্বুদ্ধ করেছে। এর ফলাফলস্বরূপ বৃন্দাবন সরকারি কলেজের একটি টিম ন্যাশনাল সায়েন্স অলিম্পিয়াডে ভালো করেছে। শুধু শিক্ষা নয়; হবিগঞ্জের খেলাধুলা ও সংস্কৃতি চর্চায়ও মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি পাশে থাকবে।
সম্প্রতি হবিগঞ্জ জেলা ভলিবল দলকে স্পন্সরশীপ প্রদান অনুষ্ঠানে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক উপর্যুক্ত কথা বলেন। জেলা ভলিবল দলের জন্য দু সেট জার্সি ও স্পন্সর গ্রহন করেন হবিগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক মোঃ বদরুল আলম। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট শাহ ফখরুজ্জামান, সহকারি অধ্যাপক সুয়েব আহমেদ খান, ওহি দেওয়ান চোধুরী, প্রমূখ।
উল্লেখ্য হবিগঞ্জ জেলা ভলিবল দল মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির নাম ও মনোগ্রাম খচিত জার্সি পড়ে সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের দলগুলোর সাথে চট্টগ্রামে আঞ্চলিক পর্যায়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet