সংবাদ শিরোনাম :
আগামীকাল রবিবার জাতীয় চা দিবস, প্রথমবারের মতো দেয়া হবে চা পুরস্কার

আগামীকাল রবিবার জাতীয় চা দিবস, প্রথমবারের মতো দেয়া হবে চা পুরস্কার

ষ্টাফ রিপোর্টার:
আগামীকাল রোববার (৩ জুন) বর্ণাঢ্য আয়োজনে দেশে তৃতীয়বারের মতো ‘জাতীয় চা দিবস’ উদযাপন করা হবে। চা দিবসে প্রথমবারের মতো ‘জাতীয় চা পুরস্কার ২০২৩’ প্রদান করা হবে।
রোববার (৩ জুন) মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের বিটিআরআই উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ‘জাতীয় চা দিবস’ উদযাপন এবং প্রথমবারের মতো ‘জাতীয় চা পুরস্কার ২০২৩’ প্রদান অনুষ্ঠান শুরু হবে। ‘চা দিবসের সংকল্প, শ্রমিকবান্ধব চা শিল্প’ প্রতিপাদ্য নিয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশ চা বোর্ডের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। আটটি ক্যাটাগরিতে আট ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার দেয়া হবে। অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিবেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রবাসী-কল্যাণ-মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি এবং উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ এমপি, সভাপতি, অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত কমিটি ও সাবেক চিফ হুইফ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপনকান্তি ঘোষ। বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন। এছাড়া, অনুষ্ঠানে বাংলাদেশীয় চা সংসদের সভাপতি কামরান টি রহমান, টি ট্রেডার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ এর সভাপতি শাহ মঈনুদ্দিন হাসান ও এফবিসিসিআই-এর সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন। এছাড়া, দিবসটি উপলক্ষ্যে দিনব্যাপী চা মেলার আয়োজন করা হয়েছে। চা মেলাতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের চা প্রদর্শন ও বিক্রি করা হবে। দর্শনার্থীদের জন্য দিনব্যপী চা মেলা উন্মুক্ত থাকবে। এছাড়াও বঙ্গবন্ধু প্যাভেলিয়ন এবং শ্রীমঙ্গলস্থ টি মিউজিয়ামে রক্ষিত চা শিল্পের দুর্লভ জিনিসপত্র প্রদর্শনের ব্যবস্থা থাকবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ০৪ জুন ১৯৫৭ সাল থেকে ২৩ অক্টোবর ১৯৫৮ তারিখ পর্যন্ত চা বোর্ডের প্রথম বাঙালি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। চা শিল্পে জাতির পিতার অসামান্য অবদান ও চা বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে তার যোগদানের তারিখকে স্মরণীয় করে রাখতে গত ২০ জুলাই ২০২০ সালে মন্ত্রিসভার বৈঠকে ০৪ জুনকে ‘জাতীয় চা দিবস’ ঘোষণা করা হয়েছে। সিলেটের মালনিছড়া চা বাগানে ১৮৫৪ সালে প্রথম বাণিজ্যিকভাবে চা চাষ শুরু করা হয়। ধীরে ধীরে এ অঞ্চলের অন্যতম সম্ভাবনাময় শিল্প হিসেবে চা শিল্প বিকশিত হতে থাকে। উনবিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝিতে ব্রিটিশ শাসনাধীন উপমহাদেশের এ অঞ্চলে চা শিল্পের অগ্রগতি মূলত ব্রিটিশদের মাধ্যমেই হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet