সংবাদ শিরোনাম :
শ্রীমঙ্গলে জ্ঞানমুদ্রা বেদ ও গীতা পরিবার এর প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও সংবর্ধনা শ্রীমঙ্গলে এক দিনে ৩টি বন্যপ্রাণী উদ্ধার শ্রীমঙ্গলে ঠাকুর ঘর থেকে পাতি বেত আঁচড়া সাপ উদ্ধার বন্যার্তদের মাঝে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশের খাবার বিতরণ মৌলভীবাজারে বন্যার পানিতে ডুবে কিশোর ও শিশুর মৃত্যু শ্রীমঙ্গলে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও নবীন বরণ অনুষ্টান মৌলভীবাজারের পাহাড়ী ঢল ও ভারী বৃষ্টিপাতে ৩৩২ গ্রাম প্লাবিত ছাতকে বন্যার পানিতে থৈ-থৈ করছে উপজেলার সর্বত্র, ঘর-বাড়ি রাস্তা-ঘাট সহ বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত,পানি বন্দী হাজার হাজার মানুষ ৩ দিনব্যাপী মার্শাল আর্ট সেমিনারের সমাপনী অনুষ্ঠান ও সনদ বিতরণ মৌলভীবাজারে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে শতাধিক পরিবারের ঈদ উদযাপন
দক্ষিণ সুরমায় আবাসিক হোটেল-কলোনিতে অবাধে অসামাজিক কর্মকাণ্ড!

দক্ষিণ সুরমায় আবাসিক হোটেল-কলোনিতে অবাধে অসামাজিক কর্মকাণ্ড!

 

এ এ রানা::
সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থানাধীন ২৬নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে মাদক সেবন ও ব্যবসা এবং পতিতাবৃত্তিসহ বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপ সংঘটিত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ রয়েছে- প্রভাবশালী মহল ও কতিপয় অসাধু পুলিশকে ‘ম্যানেজ’ করে আবাসিক হোটেলগুলোতে এসব কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে। মাঝে-মধ্যে এসব হোটেলে অভিযান চালানো হলেও এসব হোটেলে থামে না অপরাধমূলক কার্যকলাপ।

স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, অনেক দিন ধরে এসব হোটেলে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কিশোরীদের ধরে এনে অনৈতিক কর্মকাণ্ড চালোনো হচ্ছে। প্রশাসনের কিছু অসাধু কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে ম্যানেজার ও হোটেলমালিকরা এসব অনৈতিক কাজ চালিয়ে আসছে। মাঝে মাঝে অভিযান হলেও ম্যানেজার এবং মালিক কখনই আটক হন না। ফলে বন্ধ হয় না অসামাজিক কাজ।

এছাড়াও পতিতাবৃত্তির পাশাপাশি এসব হোটেলে সারারাত ধরে চলে জুয়ার আসর। সূত্র জানায়, এসব হোটেলের ম্যানেজারের কাছে রয়েছে একটি বিশেষ কলিং বেল। পুলিশের উপস্থিতি টের পেলেই ম্যানেজার সেই বেল টিপে জুয়াড়িদের সতর্ক করে দেন এবং জুয়াড়িরা সটকে পড়েন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দক্ষিণ সুরমা পুলিশ ফাঁড়ির ঠিক সামনের হোটেল আকাশ ও হোটেল যাত্রীসেবা, কদমতলি এলাকার হোটেল সূর্য, পুরাতন স্টেশন রোডের নিউ বিরতি আবাসিক হোটেল, কদমতলি পয়েন্টের হোটেল কাশবন আবাসিক, হোটেল প্রবাস, পদ্মা আবাসিক হোটেল, মেঘনা আবাসকি হোটেল এবং হুমায়ুন রশিদ চত্বরের হোটেল মার্টিনে চলে এসব অবৈধ কার্যকলাপ।

এছাড়াও দক্ষিণ সুরমার ২৬ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন কলোনি এবং বাসায়ও অবাধে চলছে এসব অনৈতিক কর্মকাণ্ড।

এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাথে আলাপ করতে চাইলে তার মোবাইল ফোনে কল দিলে তিনি কল রিসিভ করেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন :





© All rights reserved © 2021 Holysylhet